মিশরের ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ ফোরামে বাংলাদেশেকে উপস্থাপন করলো তাহমিনা

মিশরের ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ ফোরামে বাংলাদেশেকে উপস্থাপন করলো তাহমিনা

প্রবাসীর গল্প সফলতার গল্প

‘ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ ফোরাম-২০১৯’ তৃতীয়বারের মতো মিশরের শারম এল শেখ-এ অনুষ্ঠিত হয়েছিল। বাংলাদেশী মিনা ৩৫,০০০ আবেদনকারীর মধ্যে শেষ ১৬ তে অংশ নিয়েছেন। তার পুরো নাম তাহমিনা ভূঁইয়া মিনা। মালয়েশিয়ায় অধ্যয়নরত এই বাংলাদেশী মেয়েটির মাধ্যমে এই প্রথম কোন বাংলাদেশী মেয়ে এই অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন। মিশরের ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ ফোরামে বাংলাদেশেকে উপস্থাপন করলো তাহমিনা ।

উক্ত আয়োজনটি রাষ্ট্রপতি আবদেল ফাত্তাহ এল সিসির পৃষ্ঠপোষকতায়, মিশরের রেড সাগর রিসর্ট শহর মিশরের শর্ম এল শেখে ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯-এ উদ্বোধন করা হয়েছিল। মিশর সরকারের আমন্ত্রণে মধ্য প্রাচ্য, ইউরোপ, ল্যাটিন আমেরিকা এবং এশিয়ার ১৬ টি দেশের প্রতিভা নির্বাচন করা হয়েছিল। প্রায় ২৫ দিনের জন্য এই ইভেন্টে তাদের আমন্ত্রন করা হয়েছিল। বিশ্বের ৮০ টিরও বেশি দেশ থেকে ৫০০০ এরও বেশি মানুষ এই ইভেন্টে অংশ নিয়েছিল। একই সাথে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধান, আন্তর্জাতিক তরুন নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন ক্ষেত্রে তরুণদের অনুপ্রেরণামূলক ব্যক্তিত্ব এবং বিশিষ্ট আন্তর্জাতিক ব্যক্তিত্বরা উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশী তাহমিনা ভূঁইয়া আরও অন্য ১৫ টি জাতীয়তার সাথে বাংলায় বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন।

মিশরের ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ ফোরামে বাংলাদেশেকে উপস্থাপন করলো তাহমিনা
ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম

অনুস্থানের বিভিন্ন বিভাগের মধ্যে ছিল সংগীত, কৌতুক, চিত্রকলা এবং নৃত্য অন্তর্ভুক্ত ছিল। সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের এই সাহসী এবং বর্ণাঢ্য উপস্থাপনা তরুন প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে অনুপ্রেরণা জাগিয়ে তোলে তা নয়, এই তরুন অংশগ্রহণকারীরা দেখিয়েছিলেন যে কীভাবে শিল্প বিভিন্ন সংস্কৃতির মধ্যে একটি সেতু তৈরি হতে পারে।

প্রথম দিনের পারফরম্যান্স এর মধ্যে ছিল বহুভাষিক আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসিত মিশরীয় গায়ক রুলা জাকিরের একটি কনসার্ট। ২০০৯ সালে আলবেনিয়ান টিভি ট্যালেন্ট শো-এর বিজয়ী আলবেনিয়ান শিল্পী ফাতমির মুরা তার বালি শিল্পের সাথে শ্রোতাদের মনে দোলা দিয়েছিলেন, সেই সাথে ছিল মিষ্টি সুর ও তালের এক অপূর্ব সমন্বয়।

মারিসা হ্যামামোটো এবং পিয়োটার ইভানিসিও বিশ্ব যুব থিয়েটারের মঞ্চে একটি দুর্দান্ত হুইলচেয়ার নৃত্য পরিবেশন করেছিলেন। গুণী নৃত্যশিল্পীরা একটি উল্লেখযোগ্য ইভেন্টের জন্য পোল্যান্ড এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে শারম এল শেখ ভ্রমণ করেছিলেন। হোরেস ট্রায়ো উডউইন্ড, ওড এবং পার্কিনসনে দর্শনীয় পারফরম্যান্স রেখেছিল।

পুরো ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ ফোরামের ইভেন্টটি ১৩ ডিসেম্বর থেকে ১৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এই ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ ফোরাম ২০১৯-এ খাদ্য সুরক্ষা, পরিবেশগত চ্যালেঞ্জ, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা এবং ব্লকচেইন প্রযুক্তি থেকে নারীর ক্ষমতায়ন, চারুকলা এবং চলচ্চিত্র এবং আরও অনেকগুলি বিষয় নিয়ে বিস্তৃত বিষয় রয়েছে।

মিনা বর্তমানে মালয়েশিয়ার সেগি বিশ্ববিদ্যালয়ের চূড়ান্ত বর্ষের শিক্ষার্থী। বর্তমানে ইউএন টেকনোলজি ইনোভেশন ল্যাবে কাজ করছেন। সাংস্কৃতিক অঙ্গনে তিনি মালয়েশিয়ার বাংলাদেশীদের মধ্যে বেশ জনপ্রিয়।

আপনি চাইলে ভিডিও টি দেখতে পারেন । ভিডিও টি তে বিস্তারিত ভাবে বর্ণনা করা আছেঃ

মিশরের ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ ফোরামে বাংলাদেশেকে উপস্থাপন করলো তাহমিনা

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked *