কিভাবে সৌদি আরব বা মধ্যপ্রাচ্য থেকে ফিনল্যান্ড যাবেন

কিভাবে সৌদি আরব বা মধ্যপ্রাচ্য থেকে ফিনল্যান্ড যাবেন?

প্রশাসনিক তথ্য

কিভাবে সৌদি আরব বা মধ্যপ্রাচ্য থেকে ফিনল্যান্ড যাবেন ? ইউরোপ হাজার বছরের ইতিহাস ও ঐতিহ্য সমৃদ্ধ একটি মহাদেশ। তার মধ্যে ইউরোপ কেবল ইতিহাসেই সমৃদ্ধ নয়, বর্তমানে তারা তাদের অর্থনীতিকে উন্নত করতে সক্ষম হয়েছে। আসলে, বেশ কয়েকটি যুদ্ধের মাধ্যমে ইউরোপে বিপ্লব সংগঠিত হয়েছে। তবে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ ছিল সবচেয়ে বড় ধাক্কা।

এরপর, ইউরোপ মহাদেশকে আর কোন বাধার মুখোমুখি হতে হয়নি। অর্থনীতির চাকাকে গতিশীল করতে বেশিরভাগ আধুনিক প্রযুক্তি, কৃষি বিপ্লব, শিল্প বিপ্লব সবকিছু ইউরোপ থেকেই শুরু হয়েছিলো। এ কারণেই উন্নত বিশ্বের আর এক নাম ইউরোপ। ইউরোপ মহাদেশের মধ্যে অন্যতম একটি উন্নত দেশের নাম ফিনল্যান্ড। সারা বিশ্বের কোটি কোটি মানুষের স্বপ্নের দেশ ফিনল্যান্ড।

পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের মতো সৌদি আরব থেকে বা মধ্যপ্রাচ্য থেকেও মানুষ আধুনিক ও উন্নত জীবন যাপন করতে ফিনল্যান্ড যেতে চায়। কখনো কখনো মানুষ সঠিক পথ না জেনেই এই স্বপ্ন পূরণ করতে বেরিয়ে যায়। অনেকে সফল হন আবার অনেকে প্রতারিত ও ক্ষতিগ্রস্ত হন।

তবে, আপনি যদি সঠিক ও বৈধ কোন পরিকল্পনা করেন তবে আপনি অবশ্যই সৌদি আরব বা মধ্যপ্রাচ্য থেকে ফিনল্যান্ডে যেতে পারবেন এবং ফিনল্যান্ডের এর নিয়ম অনুসারে স্থায়ীভাবে বসবাস করতে পারবেন।

কিভাবে আপনি সৌদি আরব বা মধ্যপ্রাচ্য থেকে ফিনল্যান্ড যাবেন ?

আজ আমি সৌদি আরব বা মধ্যপ্রাচ্য থেকে ফিনল্যান্ড যাবার ৩ টি বৈধ উপায় নিয়ে আলোচনা করবো। এছাড়াও আজকে একদম শেষে আলোচনা করবো কিভাবে আপনি ফিনল্যান্ড অবৈধ থেকে বৈধ হবেন।

বৈধ ভাবে যদি আপনি সৌদি আরব বা মধ্যপ্রাচ্য থেকে ফিনল্যান্ড যেতে চান তাহলে ৩ টি উপায়ে যেতে পারবেন।

১. টুরিস্ট ভিসা
২. ওয়ার্ক ভিসা ও
৩. স্টুডেন্ট ভিসা

১. টুরিস্ট ভিসাঃ কোন দেশে ভ্রমনের অনুমতি দিয়ে যে ভিসা দেয়া হয় সেটাই টুরিস্ট ভিসা। আপনি যখন কোন দেশের টুরিস্ট ভিসা পাবেন তখন সেই দেশে আপনি ৯০ দিন বা ৩ মাস বৈধ ভাবে থাকার অনুমতি পাবেন। আপনি যদি ফিনল্যান্ড যেতে চান এবং যদি ফিনল্যান্ডের টুরিস্ট ভিসা না পান তবে পোল্যান্ড যেতে পারবেন। পরবর্তীতে পোল্যান্ড থেকে ফিনল্যান্ড যেতে পারবেন।

২. ওয়ার্ক ভিসাঃ কোন দেশে কাজ করার জন্য যে ভিসা প্রদান করা হয় সেটাকে ওয়ার্ক ভিসা বলা হয়। ওয়ার্ক ভিসা বৈধ ভাবে কোন দেশে যাওয়া বা থাকার জন্য বেশি জনপ্রিয়। অনেক উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশ তাদের কাজের জন্য অন্য দেশ থেকে শ্রমিক নিয়ে থাকে। আপনি যদি এরকম কোন দেশের ওয়ার্ক ভিসা পান তবে সেই দেশে বৈধ ভাবে যেতে পারবেন। সৌদি আরব বা মধ্যপ্রাচ্য থেকে অবশ্য সরাসরি ফিনল্যান্ডের ওয়ার্ক ভিসা দেয়া হয় না।

আপনি যদি কোন ভাবে ইউরোপের কোন দেশে চাকরি পেয়ে যান তবে সেই দেশেই চলে যাবেন। পরবর্তীতে সেই দেশ থেকেই ফিনল্যান্ডে যেতে পারবেন।

৩. স্টুডেন্ট ভিসাঃ সর্বশেষ যে উপায়ে আপনি বৈধ ভাবে ফিনল্যান্ড যেতে পারবেন তা হল স্টুডেন্ট ভিসা। আপনি যদি পড়ালেখা করার জন্য কোন দেশে যেতে চান আর সে দেশ যদি আপনাকে ভিসা দেয় তবে সেটা হবে স্টুডেন্ট ভিসা। অর্থাৎ আপনি উচ্চ শিক্ষার জন্য যদি ফিনল্যান্ডের কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা বৃত্তি নিয়ে পড়ালেখার সুযোগ পান তবে আপনি স্টুডেন্ট ভিসা নিয়ে ফিনল্যান্ডে বৈধ ভাবে যেতে পারবেন।

সতর্কতাঃ

বৈধভাবে ফিনল্যান্ড যেতে কিছু বিষয়ে আপনাকে অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে। যেমন,
১. এই ৩ উপায় ছাড়া অন্য কোন উপায়ে ফিনল্যান্ড যাবার চেষ্টা করা যাবে না।
২. কাউকে টাকা দিয়ে কোন কাজ করাতে যাবেন না।
৩. আপনি যদি ফিনল্যান্ড ব্যতীত অন্য দেশে যাবার সুযোগ পান অবশ্যই চলে যাবেন। পরবর্তীতে সেখান থেকে ফিনল্যান্ড যেতে পারবেন।
৪. যে দেশের যে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখার সুযোগ পাবেন চলে যাবেন।
৫. যে দেশে চাকরি পেয়ে যান তবে সেই দেশেই চলে যাবেন।

ফিনল্যান্ড যাবার পরে কি করবেন?

আপনি যদি এই ৩ উপায়ের যে কোন একটির মাধ্যমে বৈধ ভাবে ফিনল্যান্ড যেতে পারেন তাহলে আপনার প্রাথমিক কাজ শেষ। ফিনল্যান্ড পৌঁছে এবার আপনি কি করবেন?

আপনি যদি টুরিস্ট ভিসা বা স্টুডেন্ট ভিসা নিয়ে ফিনল্যান্ড যান তবে আপনার প্রথম কাজ হবে যে ৯০ দিনের ভিসা আপনি পেয়েছেন এই ৯০ দিনের মধ্যে ফিনল্যান্ড একটা চাকরি যোগাড় করা।

ফিনল্যান্ডে স্থায়ী হতে চাকরি খুজবেন না দালাল ধরবেন?

অনেকে চাকরি না খুজে মোটা অংকের টাকা দিয়ে বিভিন্ন দালাল ধরে ফিনল্যান্ড স্থায়ী বসবাসের জন্য চেষ্টা করে। কিন্তু এক্ষেত্রে আপনার লাভের থেকে লোকসান বেশি হবে। টাকা দিয়ে দালাল ধরে কাজ করানো অবৈধ। একে তো এটা প্রচুর সময় সাপেক্ষ বিষয় আবার আপনার কাজ না হবার সম্ভাবনা অনেক কম। আপনার একই সাথে সময় ও টাকা দুটোই নষ্ট হবে।

তাই সব থেকে নিরাপদ হল আপনি একটি ফুল টাইম বা পার্ট টাইম চাকরি যোগাড় করবেন। এতে আপনার সব কাজ বৈধ উপায়ে হবে। কোন টাকা তো লাগবেই না বরং চাকরি করার কারণে মাসে মাসে আপনি টাকা পাবেন। আপনার সমস্ত রেকর্ড পজেটিভ থাকবে।

কিভাবে temporary residence card পাবেন?

আপনি ফিনল্যান্ডের যে বাসায় থাকেন সেই বাসার রেজিঃ নং ও আপনি যে সত্যি সে বাসায় থাকেন তার প্রমান হিসেবে একটি লিখিত ডকুমেন্ট লাগবে। ফিনল্যান্ডের বাসার মালিকের কাছ থেকে আপনি সেটা যোগাড় করবেন। খেয়াল করবেন সেখানে যেন আপনার বাড়িতে উঠার দিন ও ভাড়ার বিস্তারিত উল্লেখ থাকে।

এখন আপনার চাকরি আছে আর থাকার জায়গার ডকুমেন্ট আছে। চাকরির appointment letter ও যে বাসায় থাকেন তার ডকুমেন্ট নিয়ে আপনি যাবেন ইন্টারন্যাশনাল ইমিগ্রেশন অফিসে। সেখানে গিয়ে এই সব ডকুমেন্ট জমা দিবেন। ইন্টারন্যাশনাল ইমিগ্রেশন অফিস আপনাকে একটি ট্যাক্স নং দেবে। এই ট্যাক্স নং আপনার ডিজিটাল পরিচিতি নং। এটি খুব সতর্কতার সাথে মনে রাখতে হবে। আপনার আয়, ব্যয়, ট্যাক্স সব কিছু এই নং এর মাধ্যমে হবে।

এর পরে এই সমস্ত ডকুমেন্ট নিয়ে আপনি ভিসা অফিসে যাবেন। ভিসা অফিসে আপনি গেলে কাজ হবে এমনটা না। আপনাকে প্রথমে appointment নিতে হবে। সরাসরি সম্ভব না হলে অনলাইনে appointment নিবেন। Appointment এর জন্য এক এক দেশ এক এক রকম সময় নেয়। এর মধ্যে আপনার টুরিস্ট ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে চাকরির appointment letter দেখিয়ে ভিসার মেয়াদ বাড়িয়ে নিতে পারবেন। ভিসা অফিসে appointment পেয়ে গেলে নির্দিষ্ট দিনে ভিসা অফিসে গিয়ে সমস্ত ডকুমেন্ট ফাইল সহ জমা দিবেন। তারা আপনার ফিঙ্গারপ্রিন্ট নিবে এবং পরবর্তীতে আসার ডেট দেবে। কোন কোন দেশের ভিসা অফিস ফিঙ্গারপ্রিন্ট নিতে অন্য ডেট দিবে। বিভিন্ন দেশ তার নিয়ম অনুসারে এই ডেট দিবে। কোন দেশ ৬ মাস কোন দেশ ৭-৮ মাস আবার কোন কোন দেশ আরও বেশি সময় নেবে। আপনার ডকুমেন্ট এর ফাইলটি যত্ন করে রাখবেন। নির্দিষ্ট এই সময় পার হলে ভিসা অফিস আপনাকে ফিনল্যান্ডের বাসার ঠিকানায় চিঠি দেবে বা আপনার সাথে অনলাইনে যোগাযোগ করবে।

ভিসা অফিস এরপর আপনাকে temporary residence card দিবে। এর মাধ্যমে আপনি ফিনল্যান্ডের অস্থায়ী নাগরিক হবেন। এই temporary residence card নিয়ে আপনি যেকোন দেশে যেতে পারবেন। আপনি চাইলে বাংলাদেশেও যেতে পারবেন।

কিভাবে ফিনল্যান্ডে permanent residence পাবেন?

আপনি যখন temporary residence card পাবেন তখন থেকেই আপনি ফিনল্যান্ডের নাগরিক। এই temporary residence card পাবার পর থেকে ইউরোপের বিভিন্ন দেশের নিয়ম অনুসারে সেই দেশে ৫, ৭, ৮ বা ১০ বছর থাকতে হবে। এরপর permanent resident হতে আবেদন করতে পারবেন। তারপর আপনি permanent resident হতে পারবেন।

কিভাবে আপনি ফিনল্যান্ডে অবৈধ থেকে বৈধ হবেন?

আপনি যদি কোন অবৈধ উপায়ে ফিনল্যান্ড গিয়ে থাকেন তাহলে কি করবেন? প্রথম কথা অবৈধ ভাবে কোন দেশে যাওয়া ঠিক না। এতে যেমন নিজের জীবনের ঝুকি থাকে ঠিক তেমনি আপনার দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়। সে যাই হোক আপনি যখন ফিনল্যান্ড পৌঁছেই গেছেন এখন জানা দরকার কিভাবে আপনি বৈধ হবেন।

এজন্য প্রথমে আপনি ফিনল্যান্ডের শরণার্থী শিবিরে যাবেন। শরণার্থী শিবিরে গিয়ে আপনি আপনার সমস্যার কথা বলবেন। সমস্যাটা এমন হতে হবে যা অনেক গুরুতর হতে হবে। এমন সমস্যা যার কারনে আপনি দেশে ফিরতে পারবেন না। হতে পারে সেটা রাজনৈতিক, সামাজিক বা ধর্মীয় কোন সমস্যা।

আপনার সমস্যা জানার পর ফিনল্যান্ডের শরণার্থী শিবির আপনার কাগজপত্র দেখবে। তারপর তারা শরণার্থী শিবিরে আপনার থাকা ও খাওয়ার ব্যবস্থা করবে। শরণার্থী শিবিরে আপনাকে ২ থেকে ৩ বছর থাকতে হবে। তারপর আপনি temporary residence এর জন্য আবেদন করতে পারবেন। Temporary residence পাওয়ার ৫ থেকে ৮ বা ১০ বছর পর আপনি ফিনল্যান্ডের সিটিজেন হতে পারবেন।

এই সম্পর্কে আরও কিছু জানতে চাইলে আমাদের কমেন্ট করুন। আমরা আপনার প্রশ্নের উত্তর দিব। আপনার ফিনল্যান্ড যাত্রা নিরাপদ ও শুভ হোক।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked *