আন্তর্জাতিক সংস্থার মালয়েশিয়া চ্যাপ্টারের সদস্য হলেন বাংলাদেশের ডাঃ লুবনা

আন্তর্জাতিক সংস্থার মালয়েশিয়া চ্যাপ্টারের সদস্য হলেন বাংলাদেশের ডাঃ লুবনা

সফলতার গল্প

২০২০ থেকে ২০২৪ মেয়াদে আন্তর্জাতিক সংস্থার মালয়েশিয়া চ্যাপ্টারের সদস্য হলেন বাংলাদেশের ডাঃ লুবনা ।

আন্তর্জাতিক সংস্থা অর্গানাইজেশন ফর উইমেন ইন সায়েন্স ফর ডেভেলপিং ওয়ার্ল্ড (OWSD) যা একটি বিভিন্ন উন্নয়নশীল দেশের মহিলা বিজ্ঞানীদের জন্য গবেষণা প্রশিক্ষণ, পেশাগত উন্নয়ন এবং নেটওয়ার্কিং এর সুযোগ সরবরাহ করে।

১৯৮৭ সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। ১৯৯৩ সাল থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করেছিল। এটি ইউনেস্কোর একটি প্রোগ্রাম ইউনিট এবং ইতালির ট্রিস্টে ওয়ার্ল্ড একাডেমি অফ সায়েন্স (TWAS) অফিসে এটি অবস্থিত। এই প্রতিষ্ঠানের প্রধান লক্ষ্য হল উন্নয়নমূলক ও উন্নত বিশ্ব থেকে বিশিষ্ট বিজ্ঞানীদের একত্রিত করে উন্নয়ন প্রক্রিয়ায় তাদের এগিয়ে নিয়ে যাওয়া।

OWSD’র মালয়েশিয়ান ন্যাশনাল চ্যাপ্টার ২০১১ সালে কুয়ালালামপুরে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।

OWSD’র মালয়েশিয়ান ন্যাশনাল চ্যাপ্টারের মূল লক্ষ্য হল মহিলাদের আর্থ-সামাজিক কাঠামোর পরিবর্তন উন্নয়নের পক্ষে সমর্থন দেওয়া। সেই সাথে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে নারীর দক্ষতা অর্জন এবং উন্নতি সাধন করার পথ প্রশস্ত করা।

বর্তমানে ডঃ লুবনা আলম মালয়েশিয়ার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে সিনিয়র প্রভাষক হিসাবে কর্মরত আছেন। তিনি মালয়েশিয়ার ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে ওশেনোগ্রাফি’তে পিএইচডি এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেছেন এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মৎস্য বিভাগে বিএ করেছেন।

তার দশ বছরেরও বেশি অভিজ্ঞতা রয়েছে গবেষণা কাজে। তিনি তার বিশ্ববিদ্যালয় এবং সরকারী ও বেসরকারী প্রতিষ্ঠান গুলোর মধ্যে একাধিক গবেষণা নেটওয়ার্ক স্থাপন করেছেন। এছাড়াও, তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাবিত মর্যাদাপূর্ণ “প্যান-এশিয়া রিস্ক রিডাকশন ফেলোশিপ” পেয়েছেন এবং ফিলিপাইনের ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, মালয়েশিয়া (স্টার্ট) এবং ইউনিভার্সিটি অব লস বানোস এর সহযোগিতায় গবেষণা পরিচালনা করেন।

তিনি বিশ্ব বিখ্যাত প্রতিষ্ঠান “দ্য ওয়ার্ল্ড একাডেমি অফ সায়েন্সেস” কর্তৃক ভূষিত TWAS-UNESCO ফেলোশিপ পেয়েছেন। এছাড়াও, তিনি জাতিসংঘ বিশ্ববিদ্যালয় কর্মসূচির কাঠামোর মধ্যে দক্ষিণ কোরিয়ার জাতীয় পুকিয়ং বিশ্ববিদ্যালয়ে “ফিশারি এবং জলবায়ু পরিবর্তন” বিষয়ক কোর্স তৈরি ও উন্নয়নের সক্রিয় কমিটির সদস্য হিসাবে কাজ করেছেন। আন্তর্জাতিক সংস্থার মালয়েশিয়া চ্যাপ্টারের সদস্য হলেন বাংলাদেশের ডাঃ লুবনা ।

এছাড়াও, আইপিসিসির প্রতিবেদনের তিনি জলবায়ুর পরিবর্তন সম্পর্কিত বিশেষজ্ঞ পর্যালোচক হিসাবে কাজ করেছেন। ইতিমধ্যে, ডাঃ লুবনা ভিজিটিং প্রফেসর হিসাবে আমন্ত্রণ পেয়েছেন বাংলাদেশের এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন-এ গ্রীষ্মকালীন কোর্স পরিচালনা করার জন্য।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published. Required fields are marked *